February 19, 2009

প্রলাপ : ৬ (ছয়) : অনাকাংখিত যুদ্ধবিরতি....

ধীর পায়ে হেঁটে চলি যান্ত্রিক অজগরের দিকে, কম্পার্টমেন্ট "গ", সীট নাম্বার ৫০। কেন জানি না, বুকের ভেতরে অদম্য একটা কষ্ট জন্মায়, নিজের সত্বাকে ফেলে যাবার কষ্ট, নিজেরজীবনকে পেছনে ফেলে যাবার কষ্ট, গলায় আঁটকে থাকে দলা পাকানো কষ্ট, কাঁটার মত।

সীটে বসে ল্যাপটপটা কোলে ফেলে সেলফোনে গান শোনা শুরু, "যখনি নিবিড় করে পেতে চাই তোমাকে, তখনি দুচোখ বুঁজি আমি.." বুঁজে থাকে চোখ থেকে গড়ায় দু'ফোঁটা জল, চোখ খুলি, মুখোমুখিসীটে বসা কিশোরীর চোখে ভয়মিশ্রিত বিষ্ময়, দানব কাঁদে!

সীটে হেলান দিয়ে বসে, আজকের ব্যার্থতার ভাবনাটা খোঁচাচ্ছে, প্রতিবারের মত এবারে দেবীর পায়ে দিতে পারিনি চুমুর অর্ঘ্য, তবে আজ তোমার পাশাপাশি চলা সময়টুকু আমার জীবনেরসবথেকে খুশির, অন্তত: গত অনেকগুলো বছরের হতাশার ঝড়ে ভেঙেপড়া সময়গুলোর তুলনায় স্বর্গীয়।

আজকে খুব ইচ্ছে হচ্ছে এই যুদ্ধে জিততে, তোমাকে জিতে নিতে যেভাবেই হোক, তোমার ইচ্ছের বিরুদ্ধেও, সত্যি! হেরে যাওনা একবার! করুনা করে হলেও!

গত অনেকগুলো বছর তোমার পূজা করেছি মনে মনে, সামনে রূঢ় আচরন থাকলেও, সেটা ছিলো ছদ্মবেশ। এবারে পণ করেছি, পেতেই হবে তোমাকে আমার, দেবী, নাহলে বুঝে নিওআমার শেষ অর্ঘ্য তোমার পায়ে, আমার প্রতিশ্রুতি মতো। দেখে নিও দেবী, তোমার পূজারী কথা রাখতে জানে....

Disqus for Simple thoughts...