December 23, 2010

সকালের নোট - ডিসেম্বর ২৩, ২০১০ বৃহস্পতিবার

মানুষের "মানুষ" হয়ে উঠবার পেছনে মানবিক গুন গুলোকেই প্রাধান্য দেই আমি, নয়তো ক্ষুধা, ঘুম, প্রজনন এবং আরো কিছু নিম্ন মাত্রার অনুভুতি অন্যান্য প্রানীতেও বিদ্যমান। আর মানুষ বায়োলজিকালি একটি "প্রানী" হলেও "মানুষ" হয়ে ওঠে তার কিছু মানবিক গুনাবলী আর সুকুমারবৃত্তির জন্যেই।

মানবিক বিকাশের জন্যেও কিছু চাহিদা থাকে, থাকে তা পূরনের প্রয়োজনীয়তা - এটাকে আমরা অস্বীকার করতে পারি না। কিন্তু শুধু মাত্র সামাজিক উচ্চাকাংখার স্কেলে মানুষকে মাপতে গিয়ে আমরা কি নিজেদের মানবিকতা আর মানসিকতারই দৈন্যদশাকে আরো প্রকট করে তুলছি না?

সাময়িক চাকচিক্যময় চোখের নেশা আর সামাজিকতার দোহাই দিয়ে লোভের পেছনে যদি ছুটবোই নৈতিকতা বিসর্জন দিয়ে তবে পিছলে পড়লে কেন দোষারোপ? কেনইবা নিজেকে আহতবোধে মানবিকতা আর নৈতিকতার মেকি মুখোশে মুখ ঢাকা যখন ছুটবার সময় এসব দুরে ছুঁড়ে ফেলেছিলাম?

আমরা সবাই আজ শর্টকাট পথে আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়ে বিলাস-ব্যাসনের জীবন চাই, একবারও ভেবে দেখি না, সুখ জিনিষটা কত আপেক্ষিক!


এমবিএ যখন একটা মানুষের দাম্পত্য জীবনের শুরুর মূল চাহিদা হয়ে ওঠে, হয়তো সেদিন খুব দূরের নয় যেদিন মিডিয়াতে বিজ্ঞপ্তি আসবে "আমাদের দেওয়া এমবিএ আপনার দাম্পত্য ও যৌনজীবনে পুরুষত্ব (ছেলেদের) অথবা গর্ভধারন (মেয়েদের) ফার্টিলিটি নিশ্চিত করে।"

বেঁচে থাকতে আমাদের অর্থের প্রয়োজন আছে অবশ্যই, তবে অর্থে পেছনে ছুটে জীবন বিসর্জন দেবার কোন মানে আমি দেখি না।

একটাই অনুভব দিনদিন প্রকট হচ্ছে কালো ছায়ার মতন, "মানুষ কেনো যেনো প্রতিমুহূর্তই একটু একটু করে অক্লান্ত চেষ্টা করে চলেছে অমানুষ হবার।"

কেন আমরা অমানুষ হয়ে উঠছি?

Disqus for Simple thoughts...